যে কারণে ইসলাম ধর্মগ্রহণ করলেন জনপ্রিয় নায়িকা
  • picture

নাইজেরিয়ার জনপ্রিয় অভিনেত্রী লিজ অঞ্জরিন তার ইসলাম গ্রহণ নিয়ে মুখ খুলেছেন। তিনি কোন মানুষের কারণে ইসলামে ধর্মান্তরিত হননি তা আবারো পুনর্ব্যক্ত করেছেন। তিনি জানান, তিনি যদি সত্যিই একজন মানুষের কারণে ইসলামে ধর্মান্তরিত হয়ে থাকেন, তবে তার উচিৎ ছিল তাকে বিয়ে করা।

তিনি বলেন, ‘আমি যদি একজন মানুষের কারণে ইসলামে ধর্মান্তরিত হই, তাহলে কেন আমি এখনো একা আছি? মানুষ অনেক ধরণের কথা বলতে পছন্দ করে, কিন্তু আমি এতে বিরক্ত নই।’ তিনি আরো জানান, পবিত্র মক্কায় হজ পালনের জন্য দুই বার গমন সত্ত্বেও তিনি তার নামে কোনো পরিবর্তন আনেননি।

তিনি বলেন, ‘ইসলামে ধর্মান্তরের পর দ্বিতীয়বারের মতো আমি মক্কা গিয়েছি। ২০১৩ সালে আমি প্রথমবারের মতো মক্কায় গিয়েছিলাম। আমার নাম এখনো লিজ অঞ্জরিন রয়ে গেছে, কিন্তু আমি মুসলিম নাম আইশাত গ্রহণ করেনি। আমার বাবা ছিলেন একজন খ্রিস্টান, কিন্ত আমার মা ছিলেন একজন মুসলিম। আমি শুধুমাত্র আমার মায়ের পথ অনুসরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

ইসলাম তার জীবনে কিভাবে ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে তার বর্ণনা দেন এই অভিনেত্রী। তার গৃহীত নতুন ধর্ম তার পোশাকে কি ধরনের পরিবর্তন এনেছে সে সম্পর্কেও তিনি কথা বলেন।

লিজ অঞ্জরিন বলেন, ‘আমি একজন ইতিবাচক ব্যক্তি এবং মানুষ আমার সম্পর্কে অনেক কিছুই জানেন না। আপনি যদি আমার ইনস্ট্রাগ্রাম পেজটি পর্যবেক্ষণ করেন তথন আপনি দেখতে পাবেন আমার পোশাকের ধরনে কি পরিবর্তন এসেছে। কিন্তু একজন সেলিব্রিটি এবং অভিনেত্রী হিসাবে আমি আমার প্রতিভা প্রদর্শন করতে যেকোনো পোশাকই পরতে পারি, যা আমার কাজ সম্পর্কিত। আমি একজন মুসলিম তা আমার কপালে লিখে রাখার প্রয়োজন অনুভব করি না।’

রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) পবিত্র মক্কা থেকে ফিরে আসার পর লিজে তার ইনস্ট্রাগ্রাম পেজে ইসলাম নিয়ে তার অনুভূতি ব্যক্ত করেন। এতে তিনি লিখেন, ‘আমি বুঝতে পেরেছি আমার দেশে ইসলামের আগমন কাউকে হত্যা বা ঘৃণা করার নয়। সৌদি নারীরা বিশ্বের সবচেয়ে সেরা সুন্দরী এবং তাদের মতো পুরুষরাও অনেক সুন্দর। কারণ এসব নারীরা খুব কঠোর পরিশ্রম করছে। তাদের অনেকেই নিজস্ব স্বর্ণ / হীরার দোকান রয়েছে। তাদের সরকারও অত্যন্ত সদয় যা তাদেরকে বিশ্বের সবচেয়ে সুখী মানুষে পরিণত করেছে। তারা বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ডিজাইনারদের ডিজাইন করা পোশাক পরেন এবং আসল পারফিউম যা আপনি কেবল সৌদিতেই পাবেন। তারা বিশ্বের সবচেয়ে বড় এবং ব্যয়বহুল হোটেলের মালিক।’

তিনি আরো লিখেন, ‘আমি আমার হোটেল রুম থেকে কিছু সিনেমা দেখেছি এবং আমি দেখেছি কিভাবে তাদের অভিনেতা এবং অভিনেত্রীরা তাদের প্রদত্ত ভূমিকা পুরোপুরি পালন করছে। প্রকৃতপক্ষে; তাদের ড্যানসারদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে হবে। সামান্য অধ্যয়নের পর আমি বুঝতে পেরেছি, তারা খুবই সিক্রেটিভ, তারা তাদের স্ত্রীদের অনেক ভাল যত্ন নেয়, তারা সুসংগঠিত।’

লিজ বলেন, ‘আমি প্রথম ২০১৩ সালে হজে গিয়েছিলাম। তখন আমি বুঝতে পেরেছি; ইসলাম নিয়ে কিছু মানুষের যে ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে, তা আসলেই অনর্থক। তাদের ধারণা থেকে ইসলাম অনেক দূরে অবস্থান করছে। আমি উপলব্ধি করতে পারছি আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) মানুষকে যুদ্ধ, হত্যা এবং ঘৃণা না করতে উৎসাহিত করেছিল।-পূর্বপশ্চিম